,

রাউজানে শীত মৌসুমে গ্রামের ঐতিহ্য


এম জাহাঙ্গীর নেওয়াজ, রাউজানবার্তা :
শীতকাল আমাদের দেশের একটি সুন্দর ঋতু। পৌষ-মাঘ মাসে এমন হাড়কাঁপানো শীত বলতে যা বোঝায় তার উপলব্দি করা যায় গ্রামে। এই শীত মৌসুমে গ্রামে শুরু হয় ঐতিহ্যবাহী নানা রকম খেলা। নগরে বসবাসকরে এমন শীতে সবাই গ্রামে ফেরার আমন্ত্রণ পায় গ্রামের বাড়িতে।

কারণ গ্রামে না গেলে শীত কী জিনিস আর শীতের অপরূপ পরিবেশ চোখে না দেখলে কখনো বোঝা যাবে না। গ্রামের সবুজ প্রকৃতির বুকে মাট জুড়ে উজ্জ্বলতা মানুষকে মুগ্ধ করে তুলে শুশীতল ছায়া। রাতের বেলায় ঘাসের উপর শিশির কী অপরূপ। শীতের বেলায় গ্রামে সূর্য ওঠার দৃশ্য বেশ মনোরম। বাড়ির সামনে মানুষ ঠায় জমায়েত হয়ে বসে থাকে সূর্য ওঠার অপেক্ষায়। মাঘ মাসের হাড়কাঁপানো শীতে বাবুদের কাবু হওয়ার কথা যুগ যুগ ধরে প্রচলিত আছে। মাঘের শুরুতে জেঁকে বসে প্রচণ্ড শীত।

এই শীতে জবুথবু অবস্থা হয় গ্রামীন মানুষের জীবনযাপনে। এই শীতের প্রকোপ যতই হোক না কেন, থেমে থাকে না গ্রামবাংলার কৃষক-কৃষাণির কাজকর্ম। শীতের এই হিমেল হাওয়ায় সব কিছুর শীতলাবস্থা হলেও গ্রামে আছে অনেক কিছু ঐহিত্যের প্রচলন। অসাধারণ সামাজিক ও পারিবারিক সংস্কৃতির ধারা এখনো আছে এই গ্রামবাংলায়। শীত এলেই আত্মীয়স্বজন বেড়াতে আসে। নানা-মামা, খালু-ফুফা, বোন-দুলাভাই যত স্বজন-সহোদর আছেন সবাই বেড়ানোর জন্য এই মৌসুমটাকে বেছে নেন। তাই শীত যতই থাকুক না কেন উৎসবের আমেজ কিন্তু গ্রামীণ জীবনে কমেনি। শীতকালে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকে বলে সবাই গ্রামের বাড়ি কিংবা আত্মীয় বাড়ি যায়। এই সময় দল বেঁধে পিকনিক কিংবা দর্শনীয় স্থানে ঘুরে বেড়ানোর মজাই আলাদা। অন্য ঋতুতে গ্রামের পরিবেশ তেমন সুন্দর নাহলেও শীতের সময় গ্রামের পরিবেশ অন্যরকম ধারণ করে। গাছের ঝড়া পাতা খালে বিলে নেই পানি কোথাও সবুজ প্রকৃতির বুকে মাট জুড়ে খেত আর খেত, কোথাও ধুদু মাঠ,নানা বয়সের ছেলে বুড়ো খেলায় মেতে উটে,দল বেধে মাঠে নেমেপড়ে খেলে ফুট বল খোলা, অনেকেই রাতে লাইট জালিয়ে খেলে বেটবিণ্টন, ক্রিকেট সহ নানা রকম খেলার আসর জমে।

দেখা যায় কৃষকের ধান কাটা শেষ হওয়ার সাথে সাথে গ্রামের ছেলেরা দলবেধে ফুটবর খেলে এমন সময় নানা বয়সিরা ও ফেলে আসা কিশোর বযসের ফুটবল খেলার কথা মনে করে দেয় বুড়োদের এসময় তারাও শিশু কিশোরদের সাথে মিশে মেতে উটে ফুটবল খেলায়,তখন আনন্দে মতোয়ারা ছেলে বুড়ো সবাই মিলে কেউ খেলে আর কেউ খেলা দেখে অনন্দ উপভোগ করে।

এক সময় গ্রামে ছেলে বুড়ো নারী পুরুষ মিলে নানান খেলায় মেতে উটত,এমন এক সময়ে ছিল হাডুডু ,কানামাছি, ডাংগোলা , পরখেলা, মইয়াখেলা, চিচিখেলা, সাতার কাটা,ঘুড়ি উড়ানো, ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা মিলে হাড়ি পাতিল নিয়ে চড়ুই ভাতি হস হরেক রকম খেলা । গ্রামের পাড়া মহল্লার সৌহাদ্দ পুর্ন পরিবেশে ছোট ছোট ছেলে মেয়ে শিশু কিশোরদের সাথে নিয়ে বুড়ো নারী পুরুষ মিলে নানান খেলায় মেতে উটত। বর্তমানে দুই একটি খেলা ছাড়া অনান্য খেলা আর চোখে পড়েনা।

মতামত দিন