,

হালদা নদীর মাটি দিয়ে তৈয়ারী করা হচ্ছে ইট, পুড়ানো হচ্ছে জ্বালানী কাঠ


হালদা নদীর তীরে ইট ভাটা

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজানের নোয়াপাড়া ইউনিয়নের মোকামী পাড়া এলাকায় হালদা নদীর তীরে ইটের ভাটায় হালদা নদীর চর কাটা মাটি দিয়ে তৈয়ারী করা হচ্ছে ইট, ইটের ভাটায় ইট পুড়ানো হচ্ছে জ্বালানী কাঠ দিয়ে ।প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীর তীরে এ আলী নামের ইটের ভাটায় হালদা নদীর চর কাটা মাটি দিয়ে ইট তৈয়ারী করা ও জ্বালানী কাঠ দিয়ে ইট পুড়ানো হলে ও সংশ্লিষ্ট বিভাগ নিরবতা পালন করে আসছে।

রাউজানের নোয়াপাড়া ইউনিয়নের কচুখাইন, মোকামী পাড়া এলাকায় তিনটি ইট ভাটা রয়েছে।তিনটি ইটের ভাটার মধ্যে এ বৎসর দুটি ইটের ভাটা বন্দ্ব রয়েছে । এ আলী নামের একটি ইটের ভাটা চালু রয়েছে।চালু থাকা ইটের ভাটায় হালদার চর, ছায়ার চর থেকে ড্রেজার দিয়ে মাটি খনন করে যান্ত্রিক নৌযান করে ইটের ভাটায় হালদা নদী দিয়ে আনা হচ্ছে ।

ইটের ভাটায় ইট পুড়ানোর জন্য পার্বর্ত এলাকার বৃক্ষ নিধন করে যান্ত্রিক নৌযান  দিয়ে কর্ণফুলী নদী হয়ে হালদা নদী দিয়ে জ্বালানী কাঠ ইটের ভাটায় এনে স্তুপ করে রাখার পর কাঠ দিয়ে প্রতিদিন পুড়ানো হচ্ছে ইট । ইটের ভাটায় যান্ত্রিক নৌযান দিয়ে হালদা নদী দিয়ে কাঠ, চর কাটা মাটি, ইট পরিবহনের ফলে হালদা নদীর মা মাছের প্রজনন হুমকির মুখে পড়েছে ।

এছাড়া ও ইটের ভাটার দুষিত বজ্য হালদা নদীতে ফেলানার কারনে হালদা নদীর পানি দুষিত হয়ে মা মাছের প্রজনন হুমকির মুখে পড়েছে ।গত কয়েক মাসে হালদা নদীতে ১৯টি ডলফিন সহ বিভিন্ন প্রজাতীর মাছ মারা যায় ।

Digital Camera

প্রধান মন্ত্রীর কার্যলয়ের তদন্ত টিম, মৎস মন্ত্রনালয়ের তদন্ত টিম, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক,জেলা মৎস বিভাগের তদন্ত টিম এসে হালদা নদী পরির্দশন করে । হালদা নদী পরিদর্শন করে যাওয়ার পর তদন্ত কারী দলের কর্মকর্তারা যান্ত্রিক নৌযানের আঘাতে ডলফিন ও মাছ মারা গেছে বলে রিপোর্ট প্রদান করেন । তদন্ত দলের রিপোর্টের পর হালদা নদীতে বালু মহাল ইজারা প্রদান বন্দ্ব করে দেয় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন । হালদা নদীতে যান্ত্রিক নৌযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে । নিষেধাজ্ঞাকে অমান্য করে হালদা নদী থকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন, হালদায় জেগে উঠা চর ড্রেজার দিয়ে কেটে নিয়ে যান্ত্রিক নৌযান করে হালদা নদী দিয়ে ইটের ভাটায় ও রাউজানের বিভিন্ন এলাকায়  হালদা নদী থেকে উত্তোলন করা বালু বিক্রয় করছে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা ।

হালদা নদীর তীরে নোয়াপাড়া ইউনিয়নের মোকামী পাড়া, উরকির চর ইউনিয়নের পশ্চিম আবুর খীল এলাকায় দুটি ইটের ভাটায় প্রতিদিন শতাধিক যান্ত্রিক নৌযান করে হালদা নদী দিয়ে চর কাটা মাটি, জ্বালানী কাঠ, ইট পরিবহন করছে।

Digital Camera

রাউজানের মোকামী পাড়া এলাকার এ আলী ইটের ভাটার কেরানী সেলিমের কাছে জানতে  ইটের ভাটার কেরানী সেলিম বৈধভাবে ইটের ভাটা পরিচালন করছে বলে দাবী করে বলেন, ইটের ভাটায় ইট তৈয়ারীর কাজে চর কাটা মাটি ব্যবহার করা হচ্ছেনা ইটের ভাটার পাশের ইটের ভাটার মালিকের জলাশয় থেকে মাটি আনা হচ্ছে বলে জানান ।

রাউজান নোয়াপাড়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার হাফিজুর রহমান ও ইউপি সচিব শহিদুল ইসলাম জানান এ আলী ইটের ভাটার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কোন ট্রেড লাইসেন্স নেয়নি। এ আলী ইটের ভাটার মালিক ইউনিয়ন পরিষদের ধায্যকরা টেক্সের টাকা দেয়নি । 

এ ব্যাপারে রাউজান উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি জেনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, হালদা নদীতে মা মাছের প্রজনন বৃদ্বির জন্য সরকার হালদা নদী থেকে বালু উত্তোলন বন্দ্ব করে দিয়েছে । নদীতে কোন ধরণের নৌযান চলাচল করতে পারবেনা । নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে হালদা নদী থেকে যারা বালু উত্তোলন করছে ও নদীতে নৌযান চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্বে অভিযাণ চালানো হবে ।  

মতামত দিন