কাপ্তাই বাঁধের পানি ছাড়া হচ্ছে, রাউজানে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টির শংকা

সংগৃহীত :

কাপ্তাই লেক থেকে বাড়তি পানি ছেড়ে দেয়া হচ্ছে। জোয়ারের সাথে এই পানি এসে পড়লে রাউজানের বেশির ভাগ এলাকায় আবার বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে।

জানা যায়, রাউজান দক্ষিণাংশের বাগোয়ান, পাহাড়তলী, নোয়াপাড়া, পশ্চিম গুজরা, উরকিরচর, বিনাজুরী ইউনিয়ন কর্ণফুলী ও হালদা নদীর সাথে। কাপ্তাই লেকের পানির ছেড়ে দেয়ার সংবাদ শুনে এ অঞ্চলের মানুষ বলছেন এমনিতে গত কয়েকদিনের ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের পানির স্রোতে রাস্তাঘাট বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। কিছু কিছু বিধ্বস্ত রাস্তা এলাকার মানুষ স্বেচ্ছাশ্রমে চলাচল উপযোগী করলেও কাপ্তাইয়ের পানির কারণে আবারও সেগুলো তলিয়ে যাবে।

এলাকার কৃষিজীবিরা বলছেন, কাপ্তাইয়ের পানি তাদের জন্য ‘মরার উপর খাড়ার ঘা’-এর মতো।

কাপ্তাই বাঁধের প্রতীকি ছবি

তারা বলছেন, বর্ষার আগে যেসব আমন বীজতলা তৈরি করেছিলেন সেইসব বীজতলা এবার বন্যার পানির নিচে তলিয়ে গিয়েছিল। জমি থেকে নামতে শুরু করলে বীজতলা মূহ পরিচর্যা করে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন তারা। এ অবস্থায় কাপ্তাই থেকে পানি এসে বীজতলা আবার ডুবিয়ে দিলে সব বীজ নষ্ট হয়ে যাবে। অনেক কৃষক বীজ সংকটে পড়ে চাষাবাদে আগ্রহ হারাবে।

খবর নিয়ে জানা যায়, কাপ্তাই হ্রদের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ২০ ফুট বেড়ে ১০৬.২ ফুটে পৌঁছেছে।

ঝুঁকির কথা বিবেচনায় নিয়ে কর্তৃপক্ষ অতিরিক্ত পানি ১৬টি গেইট ১ ফুট করে খুলে দিয়ে সেকেন্ডে ১৮ হাজার কিউসেক গতিতে পানি ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ পানি ছাড়া শুরু করলে কর্ণফুলী নদী হয়ে পানি আসবে হালদায়। ফলে রাউজান, হাটহাজারী, রাঙ্গুনিয়া, বোয়াখালী ও পটিয়া প্লাবিত হবে।

নিউজ ও বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন:

শফিউল আলম, প্রধান সম্পাদক

সাহেদুর রহমান মোরশেদ, সম্পাদক ও প্রকাশক

মোবাইল- ০১৮১৮-১১৭৪৭০

ইমেইল : raozan786@gmail.com

raozanbarta24. com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *