রাউজানে নির্বিচারে কাট হচ্ছে পাহাড় ও টিলা

 

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজান উপজেলার ডাবুয়া ইউনিয়নের মেলুয়া ও রাউজান পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের আইলী খীল দাওয়াত খোলার উত্তরে নির্বিচারে কাটা হচ্ছে পাহাড় ও টিলা ।

প্রতিদিন এসকেভেটার দিয়ে পাহাড় ওটিলা কেটে মেলুয়া ও আইলী খীল এলাকা গড়ে উঠা ইটের ভাটায় ইট তৈয়ারীর কাজে পাহাড় ও টিলা কাটা মাটি ড্রাম ট্রাকে করে এনে ইট তৈয়ারীর কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে । পাহাড় ও টিলা কাটা মাটি ইটের ভাটায় ইট তৈয়ারী করা ছাড়া ও পাহাড় ওটিলা কেটে ড্রাম ট্রাক করে প্রতিদিন রাউজানের বিভিন্ন এলাকার কৃষি জমি ভরাট, পুকুর জলাশয় ভরাট কাজে সড়ক পথে নিয়ে যাচ্ছে।

রাউজানের মেলুয়া এলাকায় একটি পাহাড় কাটার অপরাধে এক প্রভাবশালী ব্যক্তিকে গত এক বৎসর পুর্বে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ অভিযান চালিয়ে জরিমানা আদায় করেন । তারপর ও পাহাড় ও টিলা কাটা বন্ধ হয়নি।

রাউজানের মেলুয়া এলাকায় ডাবুয়া রাবার বাগানের পাশে গড়ে উঠা ইটের ভাটার মালিকেরা প্রতিনিয়ত রাবার বাগানের পাহাড় ও টিলা কাটছে। একই সাথে ডাবুয়া রাবার বাগানের পাশে ফসলী জমির মাটি এসকেভেটার দিয়ে গভীর ভাবে খনন করে ফসলী জমির মাটি নিয়ে যাচ্ছে ইটের ভাটায়।

রাউজান পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের আইলী খীল দাওয়াত খোলার উত্তর পাশে ডাবুয়া রাবার বাগানের একটি পাহাড় এসকেভেটার দিয়ে কেটে ড্রাম টাক করে পাহাড় কাটা মাটি নিয়ে যাচ্ছে। এক প্রভাবশালী ব্যক্তির ইট ভাটায় ইট তৈয়ারীর জন্য তার মালিকানাধীন ফসলী জমি থেকে গভীর ভাবে মাটি খনন করে নিয়ে যাওয়ায় ফসলী জমি বিশাল জলাশয়ে পরিণত হয়। ডাবুয়া রাবার বাগানের পাহাড় কেটে ড্রাম ট্রাক করে পাহাড় কাটা মাটি নিয়ে গিয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তির জমিতে বিশাল আয়তনের জলাশয় সৃষ্টি করা হয়েছে ঐ জলাশয় ভরাট করা হচ্ছে।

৫ মে বুধবার ভোরে ডাবুয়া রাবার বাগানের ফিল্ড অফিসার রনজিৎ বড়ুয়া ফোন করে আইলী খীল এলাকায় ডাবুয়া রাবার বাগানের পাহাড় কাটা হচ্ছে জানায়। ডাবুয়া রাবার বাগানের ফিল্ড অফিসার রনজিৎ বড়ুয়ার ফোন পেয়ে ৫ মে বুধবার সকাল ৭ টার সময়ে আইলী খীল এলাকায় গিয়ে দেখা যায় ডাবুয়া রাবার বাগানের একটি পাহাড় কেটে মাটি নিয়ে যাচ্ছে।

ঐ সময়ে ডাবুয়া রাবার বাগানের নিরপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত আনসার বাহিনীর সদস্যদের মধ্যে আনসার প্লাটুন কমান্ডার মুজিবুর রহমান বলেন, পাহাড় কাটার সংবাদ পেয়ে আনসার সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থলে আসলে পাহাড় কাটার জন্য ব্যবহৃত এসকেভেটার মেশিন নিয়ে পাহাড় কাটার সাথে জড়িতরা দ্রুত পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ডাবুয়া রাবার বাগানের ফিল্ড অফিসার রনজিৎ বড়ুয়া বলেন, পাহাড় কাটার বিষয়ে রাউজান পৌরসভার মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ ও রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগকে জানানো হয়েছে ।

রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, ডাবুয়া রাবার বাগানের পাহাড় কাটার সময়ে আমাকে জানানো হয়নি। পরে ডাবুয়া রাবার বাগানের ফিল্ড অফিসার রনজিৎ বড়ুয়া আমাকে জানিয়েছেন । রাউজানের পাহাড় টিলা যে স্থানে কাটা হবে ঐ স্থানে অভিযান চালানো হবে । রাউজানে কোন কৃষি জমি ভরাট ও কোন কৃষি জমি থেকে মাটি কাটা যাবেনা । কৃষি জমি ভরাট ও কৃষি জমি থেকে মাটি কাটলে তাদের বিরুদ্বে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *