Categories
চট্টগ্রাম রাউজান রাজনীতি সরাদেশ

রাউজানে জতির জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্মশত বার্ষিকি উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

 জতির জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্মশত বার্ষিকি উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্টিত হয় । ৩১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বিকাল ৪ টার সময় রাউজান উপজেলা প্রশাসেনের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ হলে অনুষ্টিত প্রস্তুতি সভায় সভাপতিত্ব করেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসায়েদ কবির সোহাগ। 

সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবদুল ওহাব, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্ল্যাহ, রাউজান কলেজের অধ্যক্ষ একে এম আবদুর রশিদ,  রাউজান পৌরসভার প্যনেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, রাউজান উপজেলা মুক্তিযোদ্বা সংসদের কমান্ডার আবু জাফর চৌধুরী। সভায় আরো বক্তকব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তৌহিদ তালুকদার, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবদুল কুদ্দুস, চেয়ারম্যান বিএম জসিমউদ্দিন হিরু প্রমুখ। 

সভায় আগামী ১০ জানুয়ারী বঙ্গবন্দু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যবর্তন দিবসের দিনে জতির জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্মশত বার্ষিকি উপলক্ষে আয়োজিত রাউজান কলেজ মাঠে ও নোয়াপাড়া পথের হাটে জাকঁজমক অনুষ্টানকে সফল করার জন্য সকলের সহায়তা কামনা করেন বক্তারা ।

Categories
আরো…

রাউজানে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার পাশের হার ৯৯ শতাংশ, জিপিএ৫ ৬শত ৭৩ জন

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজানে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার পাশের হার ৯৯ শতাংশ। বালিকাদের পরিক্ষার পাশের হার ৯৯.০১ শতাংশ ,বালক ৯৮.৯১ শতাংশ জিপিএ৫ পেয়েছে ৬শত ৭৩ জন । 

রাউজান উপজেলার ১৮১টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৪৩টি কিন্ডার গার্ঢেন স্কুলের ৬ হাজার ২৪ জন শিক্ষার্থী প্রথিমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার্থী ছিল। ৬ হাজার ২৪ জন শিক্ষার্থী প্রথিমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার্থীর মধ্যে পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন ৫ হাজার ৯শত ১৭ জন । অনুপস্থিত ছিলেন ১শত ৭ জন। ৫ হাজার ৯শত ১৭ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৫হাজার ৮শত ১০ জন পরিক্ষার্থী পাশ করে। 

রাউজানের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার উত্তির্ন শিক্ষার্থীদের মধ্যে বালিকাদের পরিক্ষার পাশের হার ৯৯.০১ শতাংশ। বালকদের পরিক্ষার পাশের হার ৯৮.৮১ শতাংশ। পরিক্ষার অকৃতকার্য হয়েছে ৬৪ জন তার মধ্যে ৩২ বালক, ৩২ জন বালিকা । রাউজানে ইবদেতায়ী পরিক্ষায় পাশের হার ৯৬. ৮২ শতাংশ জিপি- এ ৫ পেয়েছে ৫৩ জন । 

রাউজানে ১হাজার ৬০ জন  ইবদেতায়ী পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৯শত ৭৭ জন পরিক্ষার্থী পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন। ৮৩ জন পরিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলেন। ৯শত ৭৭ জন পরিক্ষার্থিীর মধ্যে অকৃতকার্য হয় ৩০ জন। পরিক্ষায় পাশ করেন ৯শত ৪৭ জন । পরিক্ষায় পাশের হার ৯৬. ৮২ শতাংশ ।  

 ৩১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বিকাল ২ টার ৩০ মিনিটের সময়ে রাউজান উপজেলা প্রাশিকি শিক্ষা অফিসার আবদুল কুদ্দুস প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনি ও ইবদেতাদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার ফলাফল  রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগের কাছে হস্তান্তর করার পর পর পরিক্ষার ফলফল ঘোষনা করেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ। এসময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বিষু দে, আবদুল মেমিন প্রমুখ ।

রাউজানে জে এস সি পরিক্ষায় পাশের হার ৮৬.৯১ শতাংশ জিপিএ- ৫ পেয়েছে ১শত ১৫ জন

শফিউল আলম, রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ রাউজানে জে এস সি পরিক্ষায় পাশের হার ৮৬.৯১ শতাংশ জিপিএ- ৫ পেয়েছে ১শত ১৫ জন । রাউজান উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তৌহিদ তালুকদারের দেওয়া জে এস সি পরিক্ষার ফলাফল অনুযায়ী তথ্যমতে জানা গেছে, রাউজান উপজেলার ৫৯ টি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬হাজার ১শত ৩৭ জন পরিক্ষার্থী জে, এস, সি পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন ।৬হাজার ১শত ৩৭ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশে করেন ৫ হাজার ৩শত ৩৪ জন পরিক্ষার্থী। ৫৯টি উচ্চ বিদ্যালয়ের মধ্যে শতভাগ পাশ করেছেন চট্টগ্রাম তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়, জিপিএ – ৫ পেয়েছে ৫জন,  নোয়াজিশপুর ফতেহ নগর অদ;ুদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, জিপিএ- ৫ পেয়েছে ৪জন, চিকদাইর উচ্চ বিদ্যালয়শতবাগ পাশ করেছে জিপিএ – ৫ পেয়েছে ২জন । চুয়েট স্কুল কলেজের ১শত ৭৬ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১শত ৭৫ জন শতকার পাশের হার ৯৯.৪৩ শতাংশ জিপিএ -৫ পেয়েছে ৫৬ জন। 

হলদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশে করেছে ৫৯ জন পরিক্ষায় পাশের হার ৯৮.৩৩ শতাংশ, উত্তর সর্তা দরগার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১শত ৫ জন পরিক্ষার্থী পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন পাশে করে১শত ৩ জন, জিপ্্ির -৫ পেয়েছে ২জন, পরিক্ষা পাশের হার ৯৮. ০৯ শতাংশ। মাধ্যম আধার মানিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯৯ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ কওে ৯৭ জন জিপিএ -৫ পেয়েছে ৪জন, কোতোয়ালী ঘেনার আর্দম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫৮ জন পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন পাশে করে ৫৬ জন।শতকরা পাশের হার ৯৬.৫৫ শতাংশ, কদলপুুর আইডিয়েল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৯৯ জন পরিক্ষঅর্থীর মধ্যে পাশে করেন ৯৫ জন শতকরা পাশের হার ৯৫. ৯৫ শতাংশ জিপিএ -৫ পেয়েছে ১ জন। নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২শত ৪৬ জন পরিক্ষার্থীর মধে২শত ৩৪ পাশ করে  পাশের হার ৯৫. ১২ শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ২জন। গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৯৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ৮৪ জন, পাশের হার ৯৪. ৮৪ শতাংশ। জিপিএ -৫ পেয়েছে ৩জন । মোহাম্মদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৩০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ২৩ জন, পাশের হার ৯৩. ৮৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭জন । পুর্ব গুজরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৯ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৪৬ জন পাশের হার ৯৩. ৮৭ শতাংশ। আবুর খীল অমিতাভ উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ২জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করে ৯৫ জন । পাশের হার ৯৩. ১৩ শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ১জন । গহিরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৭১ পরিক্ষার্থীর মধ্যে ১শত ৫৯ জন পাশ কওে, পাশের হার ৯২.৯৮শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ১জন। বিনাজুরী নবীন স্কুল এন্ড কলেজের ৯৯ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশে করেন ৯২ জন । পাশের হার ৯২. ৯২ শতাংশ। খৈয়াখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৮ পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৪৪ জন পাশের হার ৯১, ৬৬ শতাংশ। 

রাউজান আর আর এ সি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪শত ৭জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৩শত ৭৩ জন পাশ করেন। পাশের হার ৯১. ৬৪ শতাংশ। জিপ্এি -৫ পেয়েছে ১১ জন । ডাবুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৯ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৫৪ জন পাশের হার ৯১. ৫২ শতাংশ। পাচঁখাইন ডাক্তার মোহাম্মদ মিয়া চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৭ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৪৩ জন, পাশের হার ৯১.১৩ শতাংশ।হারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৭০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ৫৫ জন পাশের হার ৯১ শতাংশ। রাউজান আর্যমৈত্রেয় ইনস্টিটিউশনের ১শত ৩৮ জনের মধ্যে পাশ করেন১শত ২৫ জন পাশ করে, পাশের হার ৯০. ৫৭ শতাংশ। এয়াসিন শাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৫৬ পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন১শত ৪১ জন পাশের হার ৯০. ৩৮ শতাংশ । সুলতানপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯২ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করে৮৩ জন, পাশের হার ৯০. ২১ শতাংশ। উনসত্তর পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ২শত ৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করে ১শত ৮৪ জন পাশের হার ৯০.১৯শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ২জন । 

কদলপুর স্কুল এন্ড কলেজের ১শত ৬৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ৫১ জন পাশের হার ৮৯.৮৮ শতাংশ। কুন্ডেম্বরী বালিকা  বিদ্যামন্দিরের ৮৮ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৭৯ জন পাশের হার ৮৯.৭৭ শতাংশ। দলই নগর উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ১৬ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ৪ জন পাশের হার ৮৯.৬৫ শতাংশ। ইউনুছ আলমাস স্কুল এন্ড কলেজের ৬৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৫৭ জন  পাশের হার ৮৯শতাংশ। পাচঁখাইন বাগোয়ান সম্মিলনি উচ্চ বিদ্যঅলয়ের ৬০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৫৩ জন । পাশের হার ৮৮. ৩৩শতাংশ।পশ্চিম গুজরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৩০ জন। পাশের হার ৮৮. ২৩ শতাংশ। দক্ষিন গহিরা খান সাহেব উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৯ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৫২ জন, পাশের হার ৮৮. ১৩ শতাংশ। লেলাঙ্গারা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪২ জন পরিক্ষঅর্থীর মধ্যে পাশ করেন ৩৭ জন পাশের হার ৮৮শতাংশ। পশ্চিম গুহরা ইউনিুছ সুফিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ১৭ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ১ জন জিপিএ -৫ পেয়েছে ১ জন পাশের হার ৮৬. ৩২ শতাংশ। রাউজান সুরেশ বিদ্যায়তনের ১শত ৬০ পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ৩৮ জন । পাশের হার ৮৬. ২৫ শতাংশ। গুজরা শ্যামাচর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৪৩ জন  পাশের হার ৮৬ শতাংশ। উরকিরচর উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৪৭ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ২৬ জন পাশের হার ৮৫. ৭১ শতাংশ। 

পশ্চিম বিনাজুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৩৪ জন পাশের হার ৮৫ শতাংশ। মহামুনি এংলো পালি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৭৬ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ৪৮ জন, জিপিএ -৫ পেয়েছে ১জন, পাশের হার ৮৪. ০৯ শতাংশ। উত্তর গুজরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯২ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৭৭ জন পাশের হার ৮৩. ৬৯ শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ৩ জন । গুরুচন্দ্র যতিন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৫ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ২৯ জন পাশের হার ৮২. ৮৫ শতাংশ । চিকদাইর শাহাদাৎ ফজল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৬০ জন পাশের হার ৮১ শতাংশ । 

রাউজান ছালামত উল্ল্রাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৫২ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ২৩ জন পাশের হার ৮০. ৯২ শতাংশ। নোয়াপাড়া মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের ২শত ৬৬ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ২শত ১০ জন পাশের হার ৭৮. ৯৪ শতাংশ জিপিএ -৫ পেয়েছে ৩ জন । দক্ষিন কদলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩২ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছেন ২৫ জন  পাশের হার ৭৮. ৯২ শতাংশ । আধার মানিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭২ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৫৬ জন, পাশের হার ৭৭.৭৭ শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ১জন । ডাবুয়া তারাচরন শ্যমাচরন উচ্চ বিদ্যঅলয়ের ১শত ৪জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৮০ জন পাশের হার ৭৬. ৯২ শতাংশ । 

হজরত এযাসিন মাহ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৬০ জন পরিক্ষার্থিীর মধ্যে পাশ করেন ১শত ২২ জন পাশের হার ৭৬. ২৫ শতাংশ । জিপিএ -৫ পেয়েছে ২জন । কচুখাইন মিয়া আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১শত ৩ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৭৮ জন পাশ করেন । পাশের হার ৭৫.৭২ শতাংশ। দেওয়ান পুর স্কুল এন্ড কলেজের ১শত ৫জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৭৮ জন পাশের হার ৭৪. ২৮ শতাংশ ।  আবদুল সালাম উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৩২ জন পাশের হার ৭২.৭২শতাংশ। পশ্চিম আধারমানিক গুজরা রামমোহন উচ্চ বিদ্যঅলয়ের ৮০ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেন ৫৮ জন পাশের হার ৭০.৮৩ শতাংশ, জিপিএ -৫ পেয়েছে ১জন। 

নোয়াপাড়া এম বি মল্লিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭২ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ কওে ৫১ জন পাশের হার ৬৭ শতাংশ । অগ্রসার বৌদ্ব অনাথলয় উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৮ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করে ৫৯ জন, পাশের হার  ৬৭ শতাংশ। কোয়েপাড়া জে সি সেন এগ্রিকালচার এন্ড শিল্প উচ্চ বিদ্যঅলয়ের ৯১ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৬০ জন পাশ করে  জিপিএ – ৫ পেয়েছে ১জন, পাশের হার ৬৪.৭০ শতাংশ। কোয়েপাড়া বিিলক উচ্চ বিদ্যঅলয়ের ১৭ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করে ১১ জন পাশের হার ৬৪ শতাংশ। নন্দপিাড়া এস এম পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যঅলয়ের ১৪ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৯জন পাশ করে পাশের হার ৬৪ শতাংশ। সাজিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬৭ জন পরিক্ষার্থীদের মধ্যে ৪৩ জন পাশ করে পাশের হার ৪৩.৪৭ শতাংশ । দক্ষিন নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬৯ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৩০ জন পাশ করে পাশের হার ৪৩.৪৭ শতাংশ। 

Categories
চট্টগ্রাম রাউজান

রাউজানে ১শত একর জমিতে আমন ধনের চাষ করে বিপাকে কৃষক বিশু

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার ১০ নং পুর্ভ গুজরা ইউনিয়নের পুর্ব আধার মানিক এলাকার কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশু একশত একর জমিতে আমান ধানের চাষাবাদ করে ধানের বাজার মুল্য কম হওয়ায় বিপাকে পড়েছে । কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশু একশত একর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করতে তার খরচ হয়েছে ৫লাখ টাকা । 

একশত একর ফসলী জমি থেকে আমন ধান কাটার পর আমন ধান পেয়েছে ২০ মেট্রিক টন। ধানের উৎপাদন খরচ থেকে ধানের বাজার মুল্য কম হওয়ায় কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশু অর্থিক লোকসানের মুখে পড়েছে । সরকার প্রতি কেজি ধান ২৬ টাকা করে ক্রয় করলে ও কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশুর কাছ থেকে প্রতি কেজি ২৬ টাকা করে ২ মেট্রিক টন ধান ক্রয় করবে বলে কৃষি অফিস থেকে জানিয়েছেন কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশুকে । 

কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশু প্রতি বৎসর আমন ধানের মৌসুমে নিজের পৈতৃক ৫ একর ফসলী জমি ও বর্গা জমি সহ ১শত একর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করেন । প্রতি বৎসর বোরো ধানের চাষাবাদের মৌসুমে কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশু ৮০ একর জমিতে বোরো ধানের চাষাবাদ করেন । 

গত কয়েক বৎসর ধরে ধানের বাজার মুল্য কম হওয়ায় কৃষক পিযুষ কান্তি চৌধুরী বিশু বিপুল পরিমান জমিতে চাষাবাদ করে লোকসান দিয়ে আসছেন । কৃষক বিশু বলেন একশত একর জমিতে ফসলী জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করে ও আমন ধান পাকার পর জমি থেকে ধান কেটে ঘরে তোলতে প্রতিদিন ২৬ জন কৃষি শ্রমিক কাজ করছে । 

প্রতিজন কৃষি শ্রমিকের দৈনিক ৬শত টাকা করে পারিশ্রমিক দিতে হচ্ছে । কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশুর কাছে রয়েছে দুটি ধান কাটার মেশিন, চারটি ধান মাড়াই করার মেশিন, ৬টি সেচপাম্প, ৬টি পাওয়ার টিলার । কৃষক পিযুষ কন্তি চৌধুরী বিশু লোকসান দেওয়ার পর ও তার পেশা বিপুল পরিমান জমিতে ধানের চাষাবাদ ছেড়ে দেয়নি । 

কৃষক পিযুস কান্তি চৌধুরী বিশু রাউজানবার্তাকে বলেন বিপুল পরিমান জমিতে আমন ধান ও বোরো ধানের মৌসুমে চাষাবাদ করে ধানের উৎপাদন খরচের চেয়ে ধানের বাজার মুল্য কম হওয়ায় লোকসানের মুখে পড়েছি । ধান ও চাউলের বাজার মুল্য বাড়ালে কৃষকেরা জমিতে চাষাবাদে উৎসাহ পাবে । এভাবে ধান ও চাউলের বাজর মুল্য থাকলে কৃষকেরা চাষাবাদ করা থেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে । সরকার প্রতি কেজি ২৬ টাকা করে ধান ক্রয় করছে তা অপ্রতুল । বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি মোটা ধান ১৩ টাকা, চিকন ধান প্রতি কেজি ৬০ টাকা করে বিক্রয় হচ্ছে । কৃষক পিযুস কান্তি চৌধুরী বিশুর কাছ থেকে ২ মেট্রিক টন ধান ক্রয় করবে বলে কৃষি অফিস জানিয়েছেন । এখনো ধান ক্রয় করেনি । 

রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, সরকার প্রতি কেজি ২৬ টাকা করে রাউজান থেকে ১ হাজার ১শত মেট্রিক টন ধান ক্রয় করছে । উপজেলা কৃষি অফিসের দেওয়াকৃষকের তালিকা অনুসারে উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা ধান ক্রয় করছে । কৃষক পিযুস কান্তি চৌধুরী বিশুর কাছ থেকে দুই মেট্রিক টন ধান ক্রয় করা হবে।  

Categories
চট্টগ্রাম রাউজান সরাদেশ

রাউজানে বিজয় মেলার চিত্র নায়ক ইলিয়াছ কাঞ্চন :আমাদের আরেকটি বিজয় দরকার সেটি হলো সড়কে অহেতুক দুর্ঘটনায় প্রাণ দেয়া বন্ধ

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

নিরাপদ সড়ক চাই পরিষদ বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও প্রতিষ্ঠাতা চিত্র নায়ক ইলিয়াছ কাঞ্চন বলেছেন ডিসেম্বর মাসে আমরা বিজয় অর্জন করেছিলাম, আমাদের আরেকটি বিজয় দরকার, সেটি হলো সড়কে অহেতুক দুর্ঘটনায় প্রাণ দেয়া বন্ধ। পিচঢালা পথ রক্ত রঞ্জিত থেকে আমাদের উদ্ধার হতে হবে। ইরাকে, সিরিয়ার যুদ্ধে যে পরিমাণ মানুষ মারা গেছে, তার চেয়েও বেশি মানুষ এদেশে প্রতিবছর দুর্ঘটনায় মারা যাচ্ছে। প্রতিবছর দুর্ঘটনায় ৪০ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হচ্ছে। এ ৪০ হাজার কোটি টাকা রক্ষা করতে পারলে, পদ্মা সেতুর মতো আরো বেশি সেতু, স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল আরো বেশি নির্মাণ করা যেতো। 

তিনি বলেন অনেকে মনে করেন সড়ক দুর্ঘটনা আল্লাহ ঘটান বা ভাগ্যের লিখন। আসলে সৃষ্টিকর্তা  বলেছেন, ভাগ্য দুই প্রকার। একটা হলো নির্ধারিত। আরেকটি হলো তুমি যা করবে তার ফল ভোগ করতে হবে। সড়কে গাড়ি চালাতে গিয়ে যদি ট্রেনিং না থাকে, আইন না মানেন তাহলে দুর্ঘটনাতো ঘটবেই। 

তিনি বলেন বর্তমান সরকার দুর্ঘটনারোধে আইন করেছে। কিন্তু এসডিজি অর্জন করতে হলে আমাদেরকে দুঘর্টনা শূণ্যের কোটায় নিয়ে আসতে হবে। ইলিয়াছ কাঞ্চন গত ২৯ ডিসেম্বর রবিবার রাত সাড়ে ১০টায় রাউজান সরকারি কলেজ মাঠে আয়োজিত মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন।

বিজয় মেলা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা কাজী আব্দুল ওহাবের সভাপতিত্বে ও সচিব, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ এবং পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আসিফের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, উপজেলা নির্বাহী জোনায়েদ কবীর সোহাগ, সংগঠক জহির উদ্দিন, সংগঠক শওকত বাঙ্গালী, বিশ্ব ব্যাংকের সাবেক পরামর্শক শাহ্ আলম চৌধুরী, নিরাপদ সড়ক চাই পরিষদ বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংঠনিক সম্পাদক আজাদ হোসেন, ওসি কেপায়েত উল্লাহ। 

বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক বশির উদ্দিন খাঁন, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, আলহাজ নুরুল আমিন, এস.এম লিটন, দিপলু দে দিপু, সবুজ দে, আবু ছালেক, সাইদুল ইসলাম, আরমান সিকদার, ফয়সাল মাহামুদ প্রমুখ।

Categories
রাউজান

রাউজানে অস্বাস্থকর পরিবেশে খাদ্য তৈয়ারী : ২০ হাজার টাকা জরিমানা

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজান পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের প্রাণী সম্পদ অফিসের দক্ষিনে ইজি ফুড বেকারীতে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রেট জেনায়েদ কবির সোহাগ রাউজান থানা পুলিশের সহায়তায় অভিযান চালিয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য তৈয়ারী করা অপরাধে ইজি ফুড বেকারীর মালিক মোঃ গোলাপ থেকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে।

 ৩০ ডিসেম্বর সোমবার বিকালে এই অভিযান পরিচালনা করা হয় । অভিযান চলাকালে বেকারী থেকে বস্তাভর্তি পচাঁ বিস্কুট ভেজাল তৈয়ারী করা খাদ্যের সাথে মেশানোর জন্য রাখা ভেজাল দ্রব্য উদ্বার করে । 

পচাঁ বিস্কুট ও ভেজাল দ্রব্য ধংস করে দেয় রাউজান উপজেলঅ নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ ।  

Categories
রাউজান

রাউজানে আগুনে বসতঘর পুড়ে ছাই

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা : 

রাউজান উপজেলার ১০ নং পুর্ব গুজরা ইউনিয়নের পুর্ব আধার মানিক সুরন্দ্র কবিরাজের বাড়ীতে ২৮ ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে অগ্নিকান্ডের ঘটনায়  সুরন্দ্র কবিরাজের বাড়ীর প্রদীপ দে বসতঘর মালামাল সহ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। 

অগ্নিকান্ড সংগঠিত হওয়ার পর এলাকার লোকজন এসে আগুন নেভাতে সক্ষম হয় বলে জানান এলাকার বাসিন্দ্বা পিযুষ কান্তি দে বিশু । 

প্রদীপ দে এর রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সুত্রপাত হয় বলে জানান এলাকার লোকজন ।

Categories
আরো… রাউজান

রাউজানে মুক্তিযুদ্বের বিজয় মেলায় মুক্তিযোদ্বাদের সংবর্ধনা; আলেম ওলামা, পুরোহিত, বৌদ্ব ভিক্ষু ও প্রতিবন্দ্বীদের সম্মনানা বস্ত্র বিতরন

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজানে মুক্তিযুদ্বের বিজয় মেলায় মুক্তিযোদ্বাদের সংবর্ধনা আলেম ওলামা, পুরোহিত, বৌদ্ব ভিক্ষু ও প্রতিবন্দ্বীদের সম্মনানা বস্ত্র বিতরন করা হয় । 

 ২৭ ডিসেম্বর শুক্রবার সন্দ্ব্যায় রাউজান সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে মুক্তিযুদ্বের বিজয় মেলা পরিষদের উদ্যোগে মুক্তিযোদ্বাদের সংবর্ধনা আলেম ওলামা, পুরোহিত, বৌদ্ব ভিক্ষু ও প্রতিব›দ্বীদের সম্মনানা বস্ত্র বিতরন করা হয়। 

রাউজান মুক্তিযুদ্বের বিজয় শেলা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবদুল ওহাবের সভাপতিত্বে বিজয় মেলা পরিষদের সচিব রাউজান পৌরসভার ২য় প্যনেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ ও রাউজান পৌরসভা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আশিফের সঞ্চলনায় অনুষ্টিত মুক্তিযোদ্বাদের সংবর্ধনা আলেম ওলামা, পুরোহিত, বৌদ্ব ভিক্ষু ও প্রতিবন্দ্বীদের সম্মনানা বস্ত্র বিতরন অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সম্ফৃকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি । 

অনুষ্টানে প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাইস চ্যন্সেলর অধ্যাপক ড.রফিকুল আলম, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলঅ নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ, ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটি চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার, শিক্ষানুরাগী শাহ আলম চৌধুরী, রাউজান উপজেলা মুক্তিযোদ্বা সংসদের কমান্ডার আবু জাফর চৌধুরী, রাউজান উপজেলঅ আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক রাউজান পৌরসভার প্যনেল মেয়র বশির উদ্দিন খান। 

অনুষ্টানে আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল, রাউজান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিল্লূর রহমান মাসুদ, রাউজান পৌরসভা ছাত্রলীগের সভপতি অনুপ চক্রবর্তী, রাউজান কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আরমান সিকদার, সাধারন সম্পাদক ফয়সাল মাহমুদ প্রমুখ । 

অনুষ্টানে শিল্পি দিলরুবা খানম, রাঙ্গামাটি শিল্পকলা একাডেমি, রাউজান শিল্পকলা একাডেমির শিল্পিরা বিজয় মেলা মঞ্চে গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন । ।

Categories
আরো… চট্টগ্রাম রাউজান

হালদা নদীতে ২শত কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত

শফিউল আলম রাউজানবার্তা :

প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে মা মাছ ডিম ছাড়ার মৌসুমে হালদা নদী থেকে সংগ্রহ করা মা মাছের ডিম থেকে উৎপাদিত মাছের ২শত কেজি পোনা হালদা নদীতে অবমুক্ত করেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি । 

 ২৭ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকালে হালদা নদীর রাউজান উপজেলার সর্তার ঘাটে হালদা নদীতে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয় । 

এসময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ, চট্টগ্রাম জেলা মৎস অফিসার ফারহানা লাভলী, রাউজান উপজেলা মৎস সম্প্রসারণ অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন, উপজেলা প্রকৌশলী আবুল কালাম, রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলর আলমগীর আলী, রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ইরফান আহম্মদ চৌধুরী, রাউজান পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী। 

হালদা নদীতে মা মাছ ডিম ছাড়ার মৌসুমে নদী থেকে সংগ্রহ করা ডিম থেকে উৎপাদিত রেনু রাউজানের মোবারকখীল মৎস হ্যচারীর পুকুরে বড় করে বড়সাইজের রুই, কাতলঅ মৃগেল মাছের পেনা হালদা নদীতে অবমুক্ত করা হয় বলে জানান রাউজান উপজেলা মৎস সম্প্রসারণ অফিসার আবদুল্ল্যাহ আল মামুন ।

Categories
রাউজান রাজনীতি

বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের শত বর্ষ উদযাপন উপলক্ষে রাউজানে প্রস্তুতি সভা

শফিউল আলম  রাউজানবার্তা :

জাতির জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যবর্তন দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমানের শত জম্মবার্ষিকি উদযাপন উপলক্ষে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রস্তুতি সভা অনুষ্টিত হয় ।  

গত ২৫ ডিসেম্বর বুধবার সকালে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্য্যলয়ে অনুষ্টিত প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি  এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। 

রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবদুল ওহাবের সভাপতিত্বে সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চলনায় অনুষ্টিত প্রসাতুতি সভায় আরো বক্তব্য রাখেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার বাবুল, রাউজান উপওেজলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফৌজিয়া খানম মিনা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতিশাহ আলম চৌধুরী, নুরুল আবছার, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক রাউজান পৌরসভার প্যনেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, রাউজান পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম শাহাজাহান, আওয়ামী লীগ নেতা এস এম বাবর, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, জানে আলম জনি, রাউজান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাউজান পৌরসভার ২য় প্যনেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার সোহেল । 

প্রস্তুতি সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ্ব উপস্থিত ছিলেন ।  ,

Categories
রাউজান

রাউজানে দরিদ্র পরিবারের সদস্যদের বিনামুল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজানের খলিলাবাদে রোটারী ক্লাব অব আগ্রাবাদ খলিলাবাদ মদিনাতুল উলুম মার্দ্রসার উদ্যোগে দরিদ্র পরিবারের সদস্যদের বিনামুল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয় । 

গত ২৫ ডিসেম্বর বুধবার সকালে রাউজানের খলিলাবাদ মদিনাতুল ইলুম মার্দ্রসায় ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্পের অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি  এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। 

মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ¦ হাশেম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্পের অনুষ্টানে আরো বক্তব্য রাখেন রাউজান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, রোটারী ক্লাব অব আগ্রাবাদেও প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আবু ইসমাইল, রোটারী ক্লব অব আগ্রাবাদের সদস্য মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী। 

অনুষ্টানে আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলঅ আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ হোসেন কেম্পানী । 

চিকিৎসা ক্যম্পে দু শতাধিক দরিদ পরিবারের মহিলা ও পুরুষকে বিনা মুলে চিকিৎসা সেবা প্রদান