মুনির উল্লাহ’র বিচার দাবীতে নিজ সমাজ কাগতিয়া মাইজ পাড়ার লোকজন : মুনিরীয়ার বহিরাগতদের প্রতিরোদের ঘোষনা

 

রাউজানবার্তা প্রতিবেদক :

মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির বহিরাগত সদস্যদের এবার প্রতিরোধের ঘোষনা দিয়েছেন মুনির উল্লাহ’র নিজ সমাজ কাগতিয়া মাইজ পাড়ার লোকজন। গত শুক্রবার দুপুরে মুনিরীয়ার অপকর্মের বিরুদ্ধে গ্রামের মাইজপাড়া সমাজ কল্যান সমিতির মানববন্ধন কর্মসূচি ও এক প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এ ঘোষনা দেন। 

এছাড়াও ঈদের দিন মুনিরীয়ার হামলার শিকার এলাকা বিতারিত মুনির উল্লাহর আপন বড় ভাই দীর্ঘ কয়েক বছর পর নিজ গ্রামে পুলিশ পাহাড়ায় ঈদ উদযাপন করে পিতা মাওলানা তফাজ্জল আহমদের কবর জেয়ারত করেন মাওলানা মোহাম্মদ উল্লাহ ও হাবিব উল্লাহ। 

এছাড়াও মাইজপাড়া সমাজের অধিন পরিচালিত “জান্নাতুল মাওয়া জামে মসজিদ” মুনিরীয়ার লোকজন নামটি মুছে গাউছুল আজম কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ দেওয়া নাম ফলক সমাজের মানুষ তুলে নিয়ে পূর্বের নাম ‘জান্নাতুল মাওয়া” জামে মসজিদ ও গাউছুল আজম মুনিরী তাহফিজুল কোরআন ও নুরানী মাদ্রাসার নামটি মুছে পূর্বের নাম কাগতিয়া মাইজপাড়া তালীমুল কোরআন মাদ্রাসার ও দারুল ইয়াতামা মাদ্রাসা হিসেবে নাম ফলক তুলে দেওয়া হয়। 

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, কাগতিয়া একটি ঐতিহ্যবাহি গ্রাম। যে গ্রাম আজ এক ব্যক্তির কারনে আজ কলঙ্কিত হয়েছে। ভবিষ্যতে যেন আর কোনভাবেই কলঙ্কতি না হয়, সেদিকে দৃষ্টি রাখতে হবে। এজন্য এলাকায় মুনিরীয়া নামে কোন বহিরাগত দেখলে তাদের ঐক্যবদ্ধ প্রতিহত করতে মাইজপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতি ঐক্যবদ্ধ বলে জানান। 

সমাজের মুরুব্বি আহম্মদ হোসেনের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন মাইজপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি আবদুল্লাহ আল  মাসুদ, কামাল উদ্দিন, মো.করিম, মো. হেলাল, মো.শফি আলম, মো.নজরুল ইসলাম, মো.ফাহিম, মো. মোরশেদসহ এলাকার হামলার শিকার লোকজন। 

এ বিষয়ে মাইজ পাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি আবদুল্লাহ আল মাসুদ বলেন, কাগতিয়া পীর মুনির উল্লাহ ও তার ক্যাডার বাহিনী দিয়ে সমাজের একাধিক মানুষ নানাভাবে নির্যাতিত হয়েছে। জায়গা দখল থেকে শুরু করে এমন কোন অপকর্ম নেই, যা তিনি করে নি। তবে মানুষ আগে মুনিরীয়ার সন্ত্রাসীদের ভয়ে প্রতিবাদ করার সাহস পেত না। যা এখন প্রতিবাদের মূখর। এই বিষয়ে জানতে এই এলাকায় না আসলে তার নির্যাতনের চিত্র বুঝা খুবই মুসকিল।

মুনিরীয়ার চলমান আন্দোলন সম্পর্কে পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, মুনিরীয়ার নানা অপকর্ম এখন সবার মূখে মুখে। দীর্ঘ সময় মুনিরীয়া তরিকত পালন করা লোকজন মুনির উল্লাহর নানা অপকর্ম জেনে স্বইচ্ছায় পদত্যাগ ও মুনিরীয়া থেকে সম্পর্ক চিন্ন করছে। যার কারনে মুনির উল্লাহ পালিয়ে থাকলেও এলাকায় আসলে জনগন তাকে প্রতিহত করতে প্রস্তুত। তাই তিনি দিশেহারা হয়ে মানুষকে আপষ মিমাংশের কথা বলে মানুষকে বিভ্রান্তি করার অপচেষ্টা করছে। এই বিষয়ে আপষ মিমাংশের কোন কিছু আছে বলে আমি মনে করি না। কারন তিনি যেই অপরাধ করছে তা জনগণই ও আইন আদালতই এর বিচার করবে এটাই স্বাভাবিক। এতে কারো সাথে আপষ মিমাংষের প্রয়োজন আছে বলে আমি মনে করি না। 

নিউজ ও বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন:

শফিউল আলম, প্রধান সম্পাদক

সাহেদুর রহমান মোরশেদ, সম্পাদক ও প্রকাশক

মোবাইল- ০১৮১৮-১১৭৪৭০

ইমেইল : raozan786@gmail.com

raozanbarta24. com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*