আবাধে বালু উত্তোলন : সর্তার খালের ভাঙ্গনে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় মানুষের বসত বাড়ী, ফসলী জমি জনগনের চলাচলের সড়ক বিলিন

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা :

রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের হচ্চার ঘাট, বাইজ্যার হাট, গর্জনিয়া, উত্তর সর্তা, ডাবুয়া ইউনিয়নের গনি পাড়া, চিকদাইর ইউনিয়নের হক বাজার, নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের ফতেহ নগর মিলন মাস্টারের ঘাটা, নতুন হাট, চিকদাইর ইউনিয়নের দক্ষিন সর্তা, গহিরা দলই নগর এলাকায় সর্তার খালের মধ্যে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিরা খাল থেকে অবৈধভাবে প্রতিনিয়ত বালু উত্তোলন করছে।

পাওয়ার পাম্প বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করায় সম্প্রতি বর্ষার মৌসুমে সর্তা খাল দিয়ে পাহাড়ী ঢলের শ্রোতের পানিতে রাউজানের হলদিয়া ইউনিয়নের হচ্চার ঘাট, বইজ্যার হাট, হলদিয়া বড়ুয়া পাড়া, উত্তর সর্তা, গর্জনিয়া, ডাবুয়া ইউনিয়নের পশ্চিম ডাবুয়া সেনবাড়ী, পশ্চিম ডাবুয়া, গনিপাড়া, চিকদাইর ইউনিয়নের হক বাজার, দক্ষিন সর্তা, চুনতী পাড়া. গহিরা দলই নগর, নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের ফতেহ নগর মিলন মাস্টারের ঘাটা, নতুন হাট এলাকায় সর্তার খালের ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে এলাকার মানুষের বসতবাড়ী সর্তা খালে বিলিন হয়ে পড়েছে।

সর্তার খালের ভাঙ্গনে হলদিয়া ইউনিয়নের হলদিয়া ভিলেজ রোড, ডাবুয়া ইউনিয়নের আমির চৌধুরী সড়ক, গনির ঘাট সড়ক, চিকদাইর ইউনিয়নের পাঠান পাড়া সড়ক, সাহেব বাড়ী সড়ক, দক্ষিন সর্তা সড়ক, নোয়াজিশপুর চিকদাইর সংযোগ সড়কের ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয় । সর্তার খালের ভাঙ্গনের হুমকির মুখে পড়েছে চিকদাইর ইউনিয়ন পরিষদ ভবন । সর্তার খালের ভাঙ্গনে নোয়াজিশপুর নতুন হাটের পুর্বে হজরত আকবর শাহ সেতুর গোড়ালীর মাটি সরে গিয়ে সেতুটি হুমকির মুখে পড়েছে।

এছাড়াও চিকদাইর নোয়াজিশপুর সড়কের একাংশ সথৃার খালে বিলিন হয়ে গেছে । সরেজমিনে পরিদর্শন কালে দেখা যায় হলদিয়া ইউনিয়নের বউজ্যার হাট ও বড়ুয়া পাড়া এলাকায় সর্থার খালের ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় সর্তার খালের ভাঙ্গনে এলাকার মানুষের বসত ঘর খালে বিলিন ও হলদিয়া ভিলেজ রোডের একাংশ খালে বিলিন হয়ে গেলে ও এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি বাইজ্যার হাট, ও বড়ুয়া পাড়ার পাশে খালে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন করছে অবাধে।

সরেজমিনে পরিদর্শন কালে দেখা যায় রাউজানের নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের নতুন হাটের পুর্ব পাশে সর্তার খালের ভাঙ্গনে চিকদাইর নোয়াজিশপুর সড়কের একাংশ খালে বিলিন হয়ে গেছে। খালের পুর্ব পাশে চিকদাইর ইউনিয়নের চুনতী পাড়া এলাকার মানুষের বসতভিটা খালে বিলিন হয়ে গেছে। আরো ২০টি পরিবারের বসতঘর হুমকির মুখে পড়েছে।

সর্তার খালের ভাঙ্গনে নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের নতুন হাটের একাংশ খালে বিলিন হয়ে গেছে। নোয়াজিশপুর নতুন হাট মর্তার খাল ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় গহিরা দলই নগর এলাকার সাইদুল আলম মনসুর সর্তা খালের মধ্যে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করছে। সর্তার খালের মধ্যে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন করায় সর্তা খালে ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে এলাকার মানুষের বসতবাড়ী, জনগনের চলাচলের সড়ক খালে বিলিন হচ্ছে।

রাউজানের চিকদাইর ইউানিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রিয়তোষ চৌধুরী ও নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সরোয়ার্দি সিকদার জানান সম্প্রতি বন্যায় সর্তা খালের ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদশন করেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীরা। ভাঙ্গন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড এখনো কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় এলাকার লোকজন সর্তা খালের ভাঙ্গনের হুমকিতে রয়েছে।

এ ব্যাপারে নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সরোয়ার্দি সিকদার বলেন, নতুন হাট এলাকা সর্তার খালের ভাঙ্গন রোধে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্দ্ব করা অত্যাবশক।

রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ বলেন সর্তা খাল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্দ্বে শীঘ্রই অভিযাণ চালানো হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*