মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহনকারী মোঃ লাহু মিয়া রাউজানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

শফিউল আলম, রাউজানবার্তা : 

কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব এলাকার মরহুম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের প্রতিবেশী মোঃ লাহু মিয়া প্রকাশ মরা মিয়া রাউজাান পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের রায়মুকুট দিঘির পাড়ে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন ও চট্টগ্রাম প্রেস্ ক্লাবের সাবেক কর্মকর্তা সাংবাদিক এম  নাসিরুল হকের ভাড়া বাসায় যক্ষা রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। 

মোঃ লাহু মিয়া ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্বের সময়ে মুক্তিযোদ্বা কমান্ডার সাইদুল ইসলামের নেতৃত্বে ৭ নং সেক্টরের অধিনে মুক্তিযুদ্বে অংশ গ্রহন করে । অসুস্থ মোঃ লাহু মুক্তিযোদ্বা কমান্ডার সাইদুল ইসলামের নেতৃত্বে  কুলিয়ারি চর, ভৈরব, নামনগর ব্রীজ, গোচাহাটা এলাকা সহ ভৈরব এলাকায় পাক হানাদার বাহিনীর সদস্য ও রাজাকার আলবদর বাহিনীর সাথে যুদ্ব করেন । ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা সংগ্রামের পর  ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্দ্বু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকান্ডের ঘটনার পর সাবেক রাষ্ট্রপতি মরহুম জিল্লুর রহমান সহ লাহু মিয়া নিজ জম্মস্থান ছেড়ে সিলেটের পাহাড়ী এলাকায় আশ্রয় নেয বলে জানান। মোঃ লাহু মিয়া পরে তার পরিবার পরিজন নিয়ে চট্টগ্রাম নগরীর আমবাগান এলাকায় ভাড়া বাসায় জীবন যাপন করেন । পরে লাহু মিয়া পার্বত্য চট্টগ্রামের কাউখালী উপজেলা সদরে সরকারী খাসঁ জমিতে একটি বাড়ী গড়ে তোলে । ঐ বাড়ীতে লাহু মিয়র বড় পুত্র নেজাম তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বসাবাস করছেন ।নেজাম কাউখালী উপজেলা সদরে চায়ের দোকানের ব্যবসা করেন। পরবর্তী রাউজান উপজেলা সদরে তার স্ত্রী ও তিন কন্যা সন্তান পুত্র আল আমিনকে নিয়ে রাউজানের মুন্সির ঘাটা আবুল কালামের ভাড়া ঘর, প্রয়াত শিক্ষক মিনু মাষ্টারের ভাড়া ঘরে বসবাস করে লাহু মিয়া পায়ে হেটে ও ভ্যান গাড়ীতে করে এলাকায় আচাঁর বিক্রয় করে জিবিককা নিবার্হ করেন । এক ছেলে নিজ জম্মভুমি ভৈরবে থাকেন । অপর এক পুত্র আল আমিন রাউজান পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের হাজী বাড়ীতে সাংবাদিক এম  নাসিরুল হকের বাড়ীতে কেয়ারটেকার হিসাবে রয়েছেন গত দশ বৎসর ধরে। মোঃ লাহু মিয়া ৬৪ বৎসর বয়সে যক্ষা রোগে আক্রান্ত হয়ে তার স্ত্রীকে নিয়ে তার পুত্র আল আমিনের সাথে সাংবাদিক নাসিরুল হকের ভাড়া ঘর রাউজান পৌরসভা সদরের রায়মুকুট দিঘির পাড়ে বসবাস করছেন । মোঃ লাহু মিয়া বলেন অসুস্থ হওয়ার পর সাংবাদিক এম নাসিরুল হক ও তার ভাই আবু তৈয়বের সহায়তায় চট্টগ্রাম ফৌজদার হাট যক্ষা হাসপতালের চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুসারে ঔষধ সেবন করে বেচেঁ আছি। 

মোঃ  লাহু মিয়া প্রকাশ মরা মিয়া আক্ষেপ করে বলেন, দেশকে পাক হানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত করার জন্য মুক্তিযুদ্বে অংশ গ্রহন কললে ও স্বাধীন বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্বোর তালিকায় তার নাম নেই । অসুস্থ হয়ে রাউজানে পড়ে থাকলে ও তার খোজ নেয়নি কেউ ।মোঃ  লাহু মিয়া প্রকাশ মরা মিয়া মরহুম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান জিবিত থাকাবস্থায় তাকে দেখার জন্য যায়। ঐ সময়ে মরহুম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান আমার কিছু প্রয়োজন হবে কিনা জিঞ্জাসা করলে আমি কিছুর প্রয়োজন নেই বলে জানিয়ে জিল্লুর রহমানকে দেখার জন্য এসেছি বলে তাকে দেখে চলে আসি । বর্তমানে মোঃ লাহু মিয়া যক্ষা রোগে আক্রান্ত হয়ে রাউজানে সাংবাদিক নাসিরুল হকের ভাড়া ঘরে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*