রাউজানে শত বৎসরের পুরাতন পুকুর ভরাট, ফসলী জমি খেকে মাটি খনন, কৃষি জমি ভরাট করে পাকাঘর নির্মান

শফিউল আলম, রাউজান বার্তাঃ

 রাউজানের পাহাড়তলী ইউনিয়নের জগৎপুর আশ্রমের পাশে ফসলী জমি খেকে মটি খনন, উনসত্তর পাড়া এলাকায় কৃষি জমি মাটি ভরাট করে পাকাঘর নির্মান শত বৎসরের পুরাতন পুকুর মাটি দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে । 

রাউজান উপজেলার ৯নং পাহাড়তলী ইউনিয়নের জগৎপুর আশ্রমের পাশে পাহাড়ী এলাকায় ফসলী জমি এসকেভেটার দিয়ে মাটি খনন করে করা হচ্ছে মাছ চাষের প্রকল্প । একই ইউনিয়নের উনসত্তর পাড়া এলাকার শাহেদুল্ল্যাহ কাজী বাাড়ীর বাসিন্দ্বা সেলিম উদ্দিন উনসত্তর পাড়া গ্রামিন ব্যংক অফিসের পশ্চিমে ফসলী জমিতে মাটি ভরাট করে নির্মান করছে পাকাঘর । 

উনসত্তর পাড়া এলাকার তালুকদার বাড়ীর শত বৎসরের পুরাতন পুকর মাটি দিয়ে ভরাট করছে।

স্থানীয় মেম্বার কামরুল ইসলাম চুয়েটের পাশ দিয়ে পাহাড়ী এলাকা দিয়ে প্রবাহিত ছড়াও ছড়ার পাশে পাহাড় কেটে। বুবলী নামের এক মহিলার কাছে প্রতিদিন ড্রাম ট্রাক যোগে মাটি ব্ক্রিয় করছে স্থানীয় মেম্বার কামরুল ইসলাম । মেম্বার কামরুল ইসলামের কাছ থেকে মাটি ক্রয় করে শত বৎসরের পুকুর ভরাট করছেন বুবলী । 

সরেজমিনে পরিদর্শন কালে দেখা যায় চুয়েট সংলগ্ন জগৎপুর আশ্রমের পাশে দুটি এসকেভেটার দিয়ে ফসলী জমির মাটি খনন করা হচ্ছে । জগৎপুর আশ্রমের পাশে মাটি খনন কাজ পরিচালনা কারী সুমন ত্রিপুরা বলেন আশ্রমের পাশে যে জমি থেকে মাটি খনন করা হচ্ছে ঐ জমি আশ্রমের নিজস্ব সম্পত্তি । জমিতে ধানের চাষাবাদ করে লাভবান না হওয়ায় জমি থেকে মাটি খনন করে মাছ চাষের প্রকল্প করা হচ্ছে । 

জগৎপুর আশ্রম ট্রাুিস্ট্র এডভোকেট সবু প্রসাদ বিশ^াসকে ফোন করে জমি থেকে মাটি খনন করার বিষয়ে জানতে চাইলে এডভোকেট সবু প্রসাদ বিশ্বাস বলেন, জমিতে ধানের চাষ  করে লোকসান  দেওয়ায় জমি থেকে মটি খনন করে মাছ চাষের প্রকল্প গড়ে তোলার জন্য আশ্রমের ট্রাষ্ট্রিরা সিদ্বান্ত নিয়েছে । কৃষি জমি খনন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কোন অনুমতি নিয়েছে কিনা জানতে চাইলে এডভোকেট সবু প্রসাদ বিশ্বাস অনুমতি নেয়নি বলে জানান । 

জগৎপুর আশ্রমের পাশে এসকেভেটার দিয়ে মাটি খনন করে মাছ চাষের প্রকল্প করা হলে মাছ চাষ প্রকল্পের উপরিভাগে পাহাড়ের পাশে থাকা রাউজান ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পোমরা ইউনিয়নের বিপুল পরিমান জমি বর্ষার মৌসুমে বৃষ্টি পানি নিস্কাসনে বাধা সৃষ্টি হয়ে জলবদ্বÍতা সৃষ্টি হয়ে চাষাবাদের অনুপযোগি হয়ে পড়বে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন ।  

সরেজমিনে পরিদর্শন কালে আরো দেখা যায় পাহাড়তলী ইউনিয়নের উনসত্তর পাড়া এলাকায় তালকাদার বাড়ীর ১শত বৎসরের পুরাতন পুকুর মাটি দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে । পুকুরের পাশের বাসিন্দ্বা সহ কয়েকজন মিলে শত বৎসরের পুকুরটি ভরাট করছে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কোন অনুমতি না নিয়ে । স্থানীয় মেম্বার কামরুল ইসলাম খেকে মাটি ক্রয় করে পুকুরটির ভরাট করছে বলে এলাকার বাসিন্দ্বারা তাদের নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান । 

এ ব্যাপারে স্থানীয় মেম্বার কামরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন পুকুরটি ভরাট কাজে মাটি বিক্রয় করি । ৫০ ট্রাক থেকে ৬০ ট্রাক মাটি ফেলানোর পর গত ২৮ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার দিবাগত রাতে উনসত্তর পাড়া ভুমি অফিসের কর্মকর্তা আমোকে ফোন করে পুকুর ভরাট করতে নিষেধ করলে আমি পুকুর ভরাট কাজ বন্দ্ব করে দিয়েছি । 

উনসত্তর পাড়া শাহেজদুল্লাহজ কাজীর বাড়ী বাসিন্দ্বা সেলিম উদ্দিন পাহাড়তলী গ্রামিন ব্যংকের পশ্চিম পাশে পাহড়তলী চৌমুহনী গ্রামার স্কুলের উত্তর পাশে ফসলী জমিতে মাটি ভরাট করে পাকাঘর নির্মান করছে । সেলিম উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে সেলিম উদ্দিন বলেন কৃষি জমি ক্রয় করে পাকাঘর নির্মান করার জন্য জালাল থেকে মাটি ক্রয় করে ভরাট করছি । জালাল ও মেম্বার কামরুল ইসলাম চুয়েট সংগøন্ন পাহাড় টিলা পাহাড় থেকে প্রবাহিত ছড়ার মাটি ও পাহাড়ী এলাকার কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করে মাটি বিক্রয় করছে।  

কৃষি জমিতে মাটি ভরাট, কৃষি জমি থেকে মাটি খনন, পুকুর ভরাট কারী যে হউক না কেন তাদের বিরুদ্বে ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য উপজেলা প্রশাসনের কঠের হস্তক্ষেপ কামনা করেন রাউজানের পাহাড়তলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রোকন উদ্দিন। 

সরেজমিনে অনুসন্দ্বান কালে জানা গেছে রাউজানের পাহড়তলী চৌমুহনী, গৌরিশংকর হাট, নোয়াপাড়া পথের হাট, হলদিয়া আমির হাট, রাউজান ফকির হাট বাজার, দাশ পাড়া, পাকখাইন্যা পুকুর পাড়, রাউজান পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের পশ্চিম রাউজান কুলাল পাড়া এলকায় অর্ধ শতাধিক পুকুর ভরাট করে নির্মানর করা হয়েছে বাণিজিক ভবন । 

রাউজানের পাহাড়তলী ইউনিয়নের জগৎপুর আশ্রমের পাশে ফসলী জমি খেকে মটি খনন উনসত্তর পাড়া এলাকায় কৃষি জমি মাটি ভরাট করে পাকাঘর নির্মান করা প্রসঙ্গে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগের কাছে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহিী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করা ও কৃষি জমি ভরাট করে ঘর বাড়ী নির্মান, পুকুর জলাশয় ভরাট করা যাবেনা । প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা কৃষি জমি রক্ষার জন্য কৃষি জমি থেকে মাটি খনন কৃষি জমি ভরাট কারীদের বিরুদ্বে ব্যবস্থা গ্রহন করার নির্দেশ দিয়েছেন । রাউজানের সাংসদ এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করা ও কৃষি জমি ভরাট করে ঘরবাড়ী  বাণ্যিজিক ভবন নির্মান কারীদের বিরুদ্বে অভিযান চালিয়ে তাদের বিরুদ্বে ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন । রাউজানের পাহাড়তলী ইউনিয়নের জগৎপুর আশ্রমের পাশে ফসলী জমি খেকে মটি খনন উনসত্তর পাড়া এলাকায় কৃষি জমি মাটি ভরাট করে পাকাঘর নির্মান কারীদের বিরুদ্বে  তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ । 

কেউ ঘর ও ব্যাণ্যিজিক ভবন নির্মান করতে চাইলে   সহ ঘর ও বাণ্যিজিক ভবন নির্মান কাজের নকশা ও জমির দাগ নং জমির শ্রেণী উল্লেখ করে অনুমতি প্রদানের উপজেলা কমিটির কাছে আবেদন করতে হবে । উপজেলা কমিটি তদন্ত করে ঘর ও বাণ্যিজিক ভবন নির্মানের অনুমতি নেওয়ার পর ঘর ও বাণ্যিজিক ভবন নির্মান শুরু করতে হবে বলে জানান রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*